Courier: Sundarban takes 3-4 working days Contact Us: 01919751840 - 47 Location: Kashimpur, Gazipur

ছাদ বাগানে ড্রিপ ইরিগেশন সেটাপ করার খরচ

বাগান করার সাথে সাথেই আপনাকে ভাবতে হয় গাছে পানি দেয়ার কথা। পরিকল্পিতভাবে ছাদ বাগানে পানি দিলে পানির অপচয় যেমন কমে যাবে তেমনি আপনার ছাদের সুরক্ষাও হবে। ছাদ বাগানে পরিকল্পিতভাবে সেচ দেয়ার একটি আধুনিক উপায় হচ্ছে ড্রিপ ইরিগেশন সিস্টেম ব্যবহার করা।

ছাদ বাগানে ড্রিপ ইরিগেশন
ছাদ বাগানে ড্রিপ ইরিগেশন

আমরা সাধারণত গাছে পানি দেয়ার জন্য মগ বা পাইপের ব্যবহার করে থাকি, যা আপনার গাছ ও ছাদের জন্য সমীচীন নয়।
কেননা এভাবে গাছে পানি দিলে গাছের গোড়ায় যেমন অতিরিক্ত পানি জমে থাকে, তেমনি ছাদে পানি জমে আপনার ছাদ স্যাতস্যাতে হয়ে যায়।
পানির অপর নাম জীবন। সেই পানি অপচয় করা পরিবেশের জন্যও ক্ষতিকর।

মগ বা পাইপ ব্যবহার করে পানি দিলে অতিরিক্ত সময় ও শ্রম খরচ করতে হয়। আবার অতিরিক্ত পানি গাছের গোড়ায় জমে থাকলে গাছেরও ক্ষতি হয়। সেজন্য ছাদ বাগানে পানি দেয়ার জন্য উত্তম পদ্ধতি হল ড্রিপ ইরিগেশন সিস্টেম ব্যবহার করা।

“ড্রিপ ইরিগেশন বিডি” সবুজ বাংলাদেশ ও উন্নত কৃষি গড়ার লক্ষ্যে অঙ্গীকারবদ্ধ। সেই ধারাবাহিকতায় ছাদ বাগানে পানি দিতে মগ বা পাইপ ব্যবহারের পরিবর্তে ড্রিপ ইরিগেশন সিস্টেম ব্যবহার করার জন্য উৎসাহ দেই প্রিয় বাগানী বা নগর কৃষকদের।

ড্রিপ ইরিগেশন সিস্টেম কিভাবে কাজ করেঃ

প্রথমেই পানির সোর্স যেমন পাম্প/ট্যাঙ্ক/ট্যাপ থেকে ড্রিপ টিউবের কানেক্ট করা হয়। ড্রিপ টিউব আপনার ছাদ বাগানের গাছের পাশে রেখে ড্রিপার কানেক্ট করা হয়। ড্রিপার আপনার গাছের গোড়ায় ফোটা ফোটা করে সেচ দিতে থাকে।

ছাদ বাগানে ড্রিপ ইরিগেশন সেটাপ করার খরচ

১। গাছের গোড়ায় বা ছাদে অতিরিক্ত কোন পানি জমে থাকে না।

২। এটি দীর্ঘস্থায়ী পরিকল্পনা হওয়ায় ৬-৭ বছর বাগানে পানি সেচ নিয়ে কোন বিড়ম্বনায় পড়তে হয় না।

৩। ড্রিপ ইরিগেশন সিস্টেম পর্যাপ্ত পানি নিশ্চিত করে ফলে গাছের শিকড় দ্বিগুণ বৃদ্ধি পায়।

৪। গাছ দ্রুত বৃদ্ধি হয়।

৫। টাইমার ও কন্ট্রোলার ব্যবহারের মাধ্যমে নির্দিষ্ট সময়ে গাছে পানি দেয়া যায়। বাসায় না থেকেও অফিস থেকে সেচ ব্যবস্থা নিয়ন্ত্রণ করা যায়।

৬। ফিল্টার ব্যবহারের মাধ্যমে পরিশুদ্ধ পানি গাছে দেয়া যায়।

৭। ভেঞ্চুরি ও ফার্টিলাইজার ইঞ্জেক্টরের মাধ্যমে তরল সার ও ঔষধ গাছের গোড়ায় সমপরিমাণ বণ্টন নিশ্চিত করা যায়।

৮। এর ব্যবহার প্রক্রিয়া অত্যন্ত সহজ, যা আপনি নিজেই করতে পারবেন।

ড্রিপ ইরিগেশন সিস্টেমে কি কি ম্যাটেরিয়ালস ব্যবহার হয়ঃ

১। ড্রিপার
২। ড্রিপ সাপোর্ট
৩। ড্রিপ টিউব
৪। কানেক্টর (ট্যাপ, টি, এলবো, স্ট্রেট)
৫। ভেঞ্চুরি ও ফার্টিলাইজার ইঞ্জেক্টর
৬। ফিল্টার

আমাদের কাছে গাছের সংখ্যা অনুযায়ী বিভিন্ন প্যাকেজ রয়েছেঃ

১। ১৫ টি গাছ এর ড্রিপ ইরিগেশন সিস্টেম – ১০০০ টাকা।

২। ২৫ টি গাছ এর ড্রিপ ইরিগেশন সিস্টেম – ১৫০০ টাকা।

৩। ৩৫ টি গাছ এর ড্রিপ ইরিগেশন সিস্টেম- ২০০০ টাকা।

৪। ৫০ টি গাছ এর ড্রিপ ইরিগেশন সিস্টেম- ৩০০০ টাকা।

৫। ৫০ টি গাছ এর ড্রিপ ইরিগেশন সিস্টেম- ৬০০০ টাকা (অটোমেটিক টাইমার সহ)

৬। ৬০ টি গাছ এর ড্রিপ ইরিগেশন সিস্টেম– ৪৫০০ টাকা (পরবর্তীতে ১৫০ টি গাছের ইরিগেশন বৃদ্ধি করা যাবে)

৭। ১২৫ টি গাছ এর ড্রিপ ইরিগেশন সিস্টেম- ১১০০০ টাকা। (অটোমেটিক টাইমার সহ)

বিঃদ্রঃ এসব আপনি নিজেই সেটাপ করতে পারবেন। আমরা ভিডিও শেয়ার করব। আপনি যদি নিজে না করতে পারেন তাহলে আমাদের দক্ষ টেকনিশিয়ান হায়ার করতে পারবেন।

বিস্তারিত জানতে-
কৃষিবিদ ফরিদুল হাসান
01919751842
ইঞ্জিনিয়ার রোকনুজ্জামান
01919751841

ঠিকানাঃ হেড অফিস – বিএডিসি, কাশিমপুর, গাজীপুর।
সাব অফিস- মাজার রোড, মিরপুর, ঢাকা।

dripirrigation_com_bd

We will be happy to hear your thoughts

Leave a Reply

Messenger icon
বিস্তারিত জানতে মেসেজ করুন
Drip Irrigation in Bangladesh
Logo
Reset Password
Shopping cart